শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:১৩ অপরাহ্ন

স্বাগতিক কাতারকে হারিয়ে বিশ্বকাপ শুরু ইকুয়েডরের

রিপোর্টারঃ
  • প্রকাশিতঃ সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০২২

বিশ্বকাপের ৯২ বছরের ইতিহাসে উদ্বোধনী ম্যাচে এ পর্যন্ত কোন স্বাগতিক দল পরাজিত হয়নি। তবে ইতিহাস বদলে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ইকুয়েডরের কাছে বিধ্বস্ত হল আয়োজক দেশ কাতার। ইকুয়েডর বুঝিয়ে দেয় তারা ল্যাতিনের ফুটবল ঐতিহ্যের সমৃদ্ধ দেশ। তাদের ছোট করার সুযোগ নেই। এর আগের ২১টি বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ ১৬টিতে জিতেছিল আর ড্র করেছিল ৬টি ম্যাচে।

রোববার কাতারের দোহার আল বাইত স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় উদ্বোধনী ম্যাচে আয়োজক কাতারের মুখোমুখি হয় ইকুয়েডর। এই ম্যাচের মধ্য দিয়ে অভিষেক হল ফিফা বিশ্বকাপের ২২তম আসরের। উদ্বোধনী ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছে ইকুয়েডর।

মরুর বুকে আয়োজিত বিশ্বকাপে প্রথম গোল করেন ইকুয়েডরের তারকা ফরোয়ার্ড ইনার ভ্যালেন্সিয়া। ম্যাচের ১৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল দিয়ে দলকে এগিয়ে নেন তিনি। গোল মুখে তাকে কাতারের গোলরক্ষক সাদ আল সাঈব ফাউল করেন। হলুদ কার্ডও দেখেন। বিশ্বকাপ ইতিহাসে এই প্রথম আসরের প্রথম গোলটি হলো পেনাল্টি থেকে।

ম্যাচের দ্বিতীয় গোলটি আসে ৩১ মিনিটে। হেডে গোল দিয়ে জোড়া গোল পূর্ণ করেন ভ্যালেন্সিয়া। ২-০ লিড নিয়ে প্রথমার্ধের খেলা শেষ করে ইকুয়েডর।

তবে ম্যাচের ৩ মিনিটের শুরুতেই কাতারের জালে গোল দিয়েছিল ইকুয়েডর। কিন্তু অফসাইডের কারণে সেই গোলটি শেষ পর্যন্ত বাতিল হয়।

ফিফা র‍্যাংকিংয়ে দুই দলের ব্যবধান খুব বেশি নয়। কাতারের চেয়ে মাত্র ছয় ধাপ এগিয়ে ৪৪ নম্বরে অবস্থান ইকুয়েডরের। তবে মাঠের খেলায় এশিয়ান চ্যাম্পিয়নদের পাত্তায় দেয়নি লাতিনের দল ইকুয়েডর।

প্রথমার্ধ যেখানে শেষ করেছিল দ্বিতীয়ার্ধের শুরুটাও সেখান থেকেই করে ইকুয়েডর। দারুণ পাসিং ফুটবলে কাতারকে সাধারণ ফুটবল খেলতে দেয়নি তারা। গোটা ম্যাচের ৫৩ শতাংশ বল দখলে রেখে মোট ৬টি শট নেয় ইকুয়েডর যার মধ্যে তিনটিই ছিল লক্ষ্যে। বিপরীতে ৫টি শট নিলেও একটিও লক্ষ্যে রাখতে পারেনি কাতার।

বিরতির বাঁশি বাজার ঠিক আগমুহূর্তে দারুণ একটি সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি কাতার। ডান দিক থেকে আসা সতীর্থের ক্রসে মাথা ছোঁয়ালেও যথেষ্ট জোর দিতে পারেননি। বল তার মাথা ছুঁয়ে চলে যায় বাইরে।

পোস্ট শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরোও সংবাদ...
Theme From POS Digital
themesba-lates1749691102