সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:১৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু নিয়ে রহস্য: সাপের কামড় নাকি পরিকল্পিত হত্যা? পঞ্চগড়ের নৌকাডুবিতে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ মাস্তান পার্টি এসে চলচ্চিত্রের বারোটা বাজিয়ে দিয়ে গেছে: বাপ্পারাজ মধ্যনগরে সারা দেশের ন্যয়ায় বিশ্ব নদী দিবস উদযাপন করেছে উপজেলা কতৃক আলোচনা সভা ও শোভাযাত্র র্যলী কেন্দুয়ায় কৃষকলীগের ত্রি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত মধ্যনগরে শারদীয় দূর্গা পূজার প্রস্ত্ততিমূলক ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে অস্কারজয়ী অভিনেত্রী লুইস ফ্লেচার আর নেই রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জাতিসংঘ তাৎপর্যপূর্ণ পদক্ষেপ নেয়নি ১০০০ জনকে চাকরি দেবে দারাজ

ব্যাংক হিসাব খুলতে ট্রেড লাইসেন্স লাগবে না

রিপোর্টারঃ
  • প্রকাশিতঃ সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২

এখন থেকে ব্যাংক হিসাব খুলতে ট্রেড লাইসেন্স লাগবে না ছোট ব্যবসায়ীদের। হিসাবটির নাম হবে ‘পারসোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট’ বা ‘ব্যক্তিক রিটেইল হিসাব’।

বিনা খরচে ব্যাংক, মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস (এমএফএস), ই-ওয়ালেট সেবা প্রতিষ্ঠান ও পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডারগুলোতে (পিএসপি) এই হিসাব খোলা যাবে। ই-কেওয়াইসি ও ব্যাংক হিসাব খুলতে যেসব কাগজপত্র দরকার হয়, সেগুলো জমা দিলেই ব্যক্তিগত রিটেইল হিসাব খোলা যাবে। এই হিসাবে খুলতে কোনো খরচ দিতে হবে না। এছাড়া লেনদেনের ওপর ঋণও মিলবে। হিসাবটি এমএফএসে হলেও টাকা উত্তোলন খরচ কম হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগের পরিচালক মো. মেজবাউল হক বলেন, ট্রেড লাইসেন্স ছাড়াই ‘পারসোনাল রিটেইল অ্যাকাউন্ট’ খোলার সুযোগ রয়েছে। ছোট ব্যবসায়ীদের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এমন একটি নির্দেশনা রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ব্যাংক, এমএফএস ও পিএসপি সেবায় এ হিসাব খুলতে পরবেন। শনিবার এডিবির (এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক) উদ্যোগে দেশের ব্যাংক, এমএফএস ও পিএসপির প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি কর্মশালা হয়। সেখানে বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সার্কুলার অনুযায়ী, ‘ব্যক্তিক রিটেইল হিসাব’ খুলতে কোনো ধরনের ট্রেড লাইসেন্সের প্রয়োজন হবে না। ই-কেওয়াইসি ও ব্যাংক হিসাব খুলতে যে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র লাগে সেগুলো জমা দিতে হবে। এটি চলতি হিসাবের মতোই পরিচালিত হবে। বাণিজ্যিক উদ্দেশে ব্যবহার করা যাবে এ হিসাব। তবে এ হিসাবের মাধ্যমে মাসে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকার বেশি লেনদেন করা যাবে না। এ হিসাবের এককালীন স্থিতি হবে সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেমস বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক শাহ জিয়াউল হক কর্মশালায় ব্যক্তিক রিটেইল হিসাবের ওপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, ‘যাদের কোনো ট্রেড লাইসেন্স নেই, তাদের জন্য এই হিসাব। আবার তারা ব্যাংক বা সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের কাছে হিসাব খুলতে আসবেন তেমনটা নাও হতে পারে। বরং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে এসব ক্ষুদ্র-অতি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের কাছে যেতে হবে। তাদের ডিজিটাল পেমেন্ট ও ক্যাশলেস সোসাইটি সম্পর্কে বোঝাতে হবে। কাজটি কঠিন হলেও একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক আর্থিক ব্যবস্থার জন্য এর বিকল্প নেই।’ কারা হিসাব খুলতে পারবেন

অতি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী যেমন- মুদি দোকানি, ভাসমান খাদ্যপণ্য বিক্রেতা, বাস-সিএনজি-রিকশাচালক, ফুচকা-চটপটি বিক্রেতা, ফেসবুকে বিভিন্ন পণ্য ও সেবা বিক্রেতা বা বিভিন্ন প্রান্তিক পেশায় নিয়োজিত সেবা প্রদানকারী ব্যক্তিরা এই হিসাব খুলতে পারবেন।

হিসাবটি খোলার জন্য জাতীয় পরিচয়পত্রের এক কপি অনুলিপি ও পেশার প্রমাণপত্র দিলেই হবে। পেশার প্রমাণপত্রের জন্য ট্রেড লাইসেন্স বাধ্যতামূলক নয়। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বা সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী সমিতির দেয়া বৈধ কাগজ হলেই হবে।

পোস্ট শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরোও সংবাদ...
Theme From POS Digital
themesba-lates1749691102